//
আল-হাম্‌দের গুণাগুণ

ইমাম আহমাদ্‌ বিন হানবাল্‌ লিখেছেন যে, আল-আসওয়াদ বিন সারি’ বলেছেন, “আমি বললাম, ‘হে আল্লাহ্‌র রসূল! আমি কি আমার নিজের রচিত মহান আল্লাহ্‌র প্রশস্তি আবৃত্তি করব?’ তিনি বললেন,

أَمَا إِنَّ رَبَّكَ يُحِبُّ الْحَمْدَ

নিশ্চয়ই তোমার প্রভু আল-হ়ামদ্‌ পছন্দ করেন।”

আন-নাসা’ই –ও অনুরূপ হাদীস লিপিবদ্ধ করেছেন।

আবু ‘ইসা আত-তিরমিযী, আন-নাসা’ই এবং ইবন্‌ মাজাহ্‌ লিখেছেন যে, মুসা বিন ইব্রহিম বিন কাথির, তালহা বিন খিরশ হতে বর্ণনা করেছেন যে, জাবির বিন ‘আব্দুল্লাহ্‌ বলেছেন যে আল্লাহ্‌র রসূল বলেছেন,

أَفْضَلُ الذِّكْرِ لَا إِلهَ إِلَّا اللهُ، وَأَفْضَلُ الدُّعَاءِ الْحَمْدُلله

সবচেয়ে ভাল জ়িকর্‌ (আল্লাহ্‌র স্মরণ) হচ্ছে লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ্‌ এবং

সবচেয়ে ভাল দু’আ হচ্ছে আল-হামদুলিল্লাহ্‌।

আত-তিরমিযী বলেছেন এই হাদীসটি হাসান গ’রীব।

ইবন্‌ মাজাহ্‌ লিখেছেন যে, আনাস বিন মালিক রাদি’আল্লাহু তা’আলা আনহু বলেছেন যে, আল্লাহ্‌র রসূল সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন,

مَا أَنْعَمَ اللهُ عَلَى عَبْدٍنِعْمَةً فَقَالَ: الْحَمْدُ للهِ، إِلَّا كَانَ الَّذِي أَعْطَى أَفْضَلَ مِمَّا أَخَذَ

আল্লাহ্‌ তাঁর বান্দাকে কিছু দান করার পর যদি সে তার জন্য ‘আল-হামদুলিল্লাহ্‌’ পাঠ করে তবে তিনি বান্দাকে যা দান করেছেন সেটা বান্দার অর্জিত যে কোন বস্তু থেকে উত্তম হবে।

ইবন্‌ মাজাহ্‌ তাঁর সুনানে আরও লিখেছেন যে, ইবন্‌ ‘উমার বলেছেন যে, আল্লাহ্‌র রসূল সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন,

إِنَّ عَبْدًا مِنْ عِبَادِ اللهِ قَالَ:يَا رَبِّ لَكَ الْحَمْدُ كَمَا يَنْبَغِي لِجَلَالِ وَجْهِكَ وَعَظِيمِ سُلْطَانِكَ.

فَعَضَلَتْ بِالْمَلَكَيْنِ فَلَمْ يَدْرِيَا كَيْفَ يَكْتُبَانِهَا فَصَعِدَا إِلَى اللهِ فَقَالَا: يَا رَبَّنَا إِنَّ عَبْدًا قَدْ قَالَ مَقَالَةً لَا نَدْرِي

كَيْفَ نَكْتُبُهَا، قَالَ اللهُ، وَهُوَ أَعْلَمُ بِمَا قَالَ عَبْدُهُ: مَاذَا قَالَ عَبْدِي؟ قَالَا: يَا رَبِّ إِنَّهُ قَالَ:

لَكَ الْحَمْدُ يَا رَبِّ كَمَا يَنْبَغِي لِجَلَالِ وَجْهِكَ وَعَظِيمِ سُلْطَانِكَ. فَقَالَ اللهُ لَهُمَا: اكْتُبَاهَا كَمَا قَالَ عَبْدِي،

حَتَّى يَلْقَانِي فَأَجْزِيهِ بِهَا.

একবার আল্লাহ্‌র এক বান্দা বলল, ‘ হে আল্লাহ্‌! আপনার জন্যই হ়ামদ্‌, আপনার অপার করুণা এবং অনন্য উদারতার জন্য এটা শুধু আপনার জন্যই প্রযোজ্য।’

দুই ফিরিশতা এই কথার পুণ্য কীভাবে লিখবে সে ব্যাপারে দ্বিধান্বিত হয়ে আল্লাহ্‌র কাছে যেয়ে জিজ্ঞেস করলেন, ‘হে আমাদের প্রভু, এইমাত্র আপনার এক বান্দা আপনার প্রশস্তি বর্ণনা করেছে, কিন্তু আমরা বুঝতে পারছিনা কীভাবে এর পুণ্য লিখব।’

আল্লাহ্‌ তাঁর বান্দার সবকিছু জানা সত্ত্বেও ফিরিশতাদের জিজ্ঞেস করলেন, ‘আমার বান্দা কি বলেছে?’

তারা বলল, ‘সে বলেছে, ‘হে আল্লাহ্‌! আপনার জন্যই হাম্‌দ, আপনার অপার করুণা এবং অনন্য উদারতার জন্য এটা শুধু আপনার জন্যই প্রযোজ্য।’

আল্লাহ্‌ তাদের বললেন, ‘যতদিন পর্যন্ত আমার বান্দার সাথে আমার দেখা না হচ্ছে ততদিন পর্যন্ত আমার বান্দা যেভাবে বলেছে সেভাবেই এটা লিখে রাখ এবং এটার পুরষ্কার আমি নিজে তাকে দিব।’

<< পূর্বের পৃষ্ঠা  ▬▬▬▬▬ পরের পৃষ্ঠা >>

Advertisements

আলোচনা

কোন মন্তব্য নেই এখনও

মন্তব্য করুন...

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: