//
আল-ফাতিহা এবং সলাত

মুসলিম লিখেছেন যে, আবু হুরায়রাহ্‌ বলেছেন, নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন,

«مَنْ صَلَى صَلَاةً لَمْ يَقْرَأْ فِيهَا أُمَّ الْقُرْآنِ فَهِيَ خِدَاجٌ ثَلَاثًا غَيْرُ تَمَامٍ»

(উমম আল-কুর’আন না পড়ে যে ব্যাক্তি নামায পড়বে, তার নামায হবে না।) তিনি এটা তিনবার বলেছেন।

আবু হুরায়রাহ্‌ কে জিজ্ঞেস করা হল, “আর যখন আমরা ইমামের পিছনে দাঁড়াই?”
তিনি বললেন, “মনে মনে পড়, কেননা আমি নাবীকে বলতে শুনেছি,

« قَالَ اللَّهُ عَزَّ وَجَلَّ: قَسَمْتُ الصّلَاةَ بَيْنِي وَبَيْنَ عَبْدِي نِصْفَيْنِ وَلِعَبْدِي مَا سَأَلَ فَإِذَا قَالَ:

﴿الْحَمْدُ للَّهِ رَبِّ الْعَـلَمِينَ ﴾، قَالَ اللهُ: حَمِدَنِي عَبْدِي وَإِذَا قَالَ:

﴿الرَّحْمَـنِ الرَّحِيمِ ﴾، قَالَ اللهُ: أَثْنى عَلَيَّ عَبْدِي، فَإذَا قَالَ:

﴿مَـلِكِ يَوْمِ الدِّينِ ﴾، قَالَ اللهُ: مَجَّدَنِي عَبْدِي وَقَالَ مَرَّةً: فَوَّضَ إِلَيَّ عَبْدِي فَإِذَا قَالَ:

﴿إِيَّاكَ نَعْبُدُ وَإِيَّاكَ نَسْتَعِينُ ﴾، قَالَ: هذَا بَيْنِي وَبَيْنَ عَبْدِي وَلِعَبْدِي مَا سَأَلَ، فَإِذَا قَالَ:

﴿اهْدِنَا الصِّرَاطَ الْمُسْتَقِيمَ – صِرَاطَ الَّذِينَ أَنْعَمْتَ عَلَيْهِمْ غَيْرِ الْمَغْضُوبِ عَلَيْهِمْ وَلاَ الضَّآلِّينَ ﴾، قَالَ اللهُ: هذَا لِعَبْدِي وَلِعَبْدِي مَا سَأَلَ»

মহান আল্লাহতা’আলা বলেছেন, “আমি নামাযকে (আল-ফাতিহাহ্‌) কে আমার এবং আমার বান্দার মাঝখানে দুই ভাগে ভাগ করেছি, এবং আমার বান্দা তাই পাবে যা সে চায়। যখন সে বলে,

﴿الْحَمْدُ للَّهِ رَبِّ الْعَـلَمِينَ ﴾

(সকল প্রশংসা ও ধন্যবাদ আল্লাহর জন্য, যিনি সকল বিশ্বজগতের প্রভু।)

আল্লাহ্‌ বলেন, ‘আমার বান্দা আমার প্রশংসা করেছে।’
যখন বান্দা বলে,

﴿الرَّحْمَـنِ الرَّحِيمِ ﴾

(সর্বাপেক্ষা দয়াময়, সর্বাপেক্ষা দয়ালু)

আল্লাহ্‌ বলেন, ‘আমার বান্দা আমার মাহাত্ম্য বর্ণনা করেছে।’
যখন বান্দা বলে,

﴿مَـلِكِ يَوْمِ الدِّينِ ﴾

(প্রতিফল দিবসের মালিক।) আল্লাহ্‌ বলেন, ‘আমার বান্দা আমার মাহাত্ম্য বর্ণনা করেছে,’ অথবা, ‘আমার বান্দা সবকিছু আমার উপর সমর্পণ করেছে।’ যখন সে বলে,

﴿إِيَّاكَ نَعْبُدُ وَإِيَّاكَ نَسْتَعِينُ ﴾

(আমরা [শুধু] আপনারই উপাসনা করি, এবং [শুধু] আপনার কাছেই সাহায্য চাই)

আল্লাহ্‌ বলেন, ‘এটা একান্তই আমার ও আমার বান্দার মধ্যকার ব্যাপার, এবং আমার বান্দা যা চাবে সে তাই পাবে।’
যখন সে বলে,

﴿اهْدِنَا الصِّرَاطَ الْمُسْتَقِيمَ – صِرَاطَ الَّذِينَ أَنْعَمْتَ عَلَيْهِمْ غَيْرِ الْمَغْضُوبِ عَلَيْهِمْ وَلاَ الضَّآلِّينَ ﴾

(আমাদের সরল পথে পরিচালিত করুন। তাদের পথ যাদেরকে আপনি অনুগ্রহ দান করেছেন। তাদের [পথ] নয়, যারা আপনার রোষে পতিত হয়েছে, আর না তাদের যারা পথভ্রষ্ট), আল্লাহ বলেন, ‘এটা আমার বান্দার জন্য, আমার বান্দা যা চাবে সে তাই পাবে।’)।”

এটা আন-নাসা’ইর বর্ণনা। তবে “এর অর্ধেক আমার আর বাকি অর্ধেক আমার বান্দার জন্য, এবং আমার বান্দা যা চাবে, সে তাই পাবে।” এই বর্ণনাটি মুসলিম ও আন-নাসা’ই দুজনেই সংগ্রহ করেছেন।

<< পূর্বের পৃষ্ঠা ▬▬▬▬▬ পরের পৃষ্ঠা >>

Advertisements

আলোচনা

কোন মন্তব্য নেই এখনও

মন্তব্য করুন...

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: