//
বিশ্বাসীদের গুণাবলী

পূর্বের আইয়াতে যাদের কথা বর্ণনা করা হয়েছে এই আইয়াতেও (২:৪) তাদের কথাই বলা হয়েছে।

মুজাহিদ বলেছেন, “সূরাত আল-বাক্বরর প্রথম চারটি আইয়াতে বিশ্বাসীদের আলোচনা করা হয়েছে এবং তার পরবর্তী তেরোটি আইয়াতে ভণ্ড মুনাফিকদের সম্বন্ধে আলোচনা করা হয়েছে।” সুতরাং এ চারটি আইয়াত প্রত্যেক বিশ্বাসীদের জন্যে সাধারণ বা সমভাবে প্রযোজ্য। সে আরবীয় হোক কিংবা অনারবীয়, অথবা পূর্ববর্তী গ্রন্থধারী, মানুষ কিংবা জিন যাই হোক না কেন। কারণ, এর মধ্যে প্রত্যেকটি গুণ একটি অন্যটির জন্য জরুরী শর্ত। একটাকে বাদ দিয়ে অন্যটা হতে পারে না। আল্লাহর বার্তাবহ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ও তাঁর পূর্ববর্তী বার্তাবহগণ যে বার্তা নিয়ে এসেছিলেন তাতে বিশ্বাস না করেই কেউ অদৃশ্যে বিশ্বাস, নামায প্রতিষ্ঠা, যাকাত প্রদান করবে এমনটা সম্ভবপর নয়। পরকালের প্রতি নিশ্চিতভাবে বিশ্বাসের ক্ষেত্রেও একই শর্ত প্রযোজ্য। একটি ছাড়া অপরটি শুদ্ধ নয়। এই জন্য বিশ্বাসীদের প্রতি আল্লাহ নির্দেশ দিচ্ছেনঃ

﴿يَـأَيُّهَا الَّذِينَ ءَامَنُواْ ءَامِنُواْ بِاللَّهِ وَرَسُولِهِ وَالْكِتَـبِ الَّذِى نَزَّلَ عَلَى رَسُولِهِ وَالْكِتَـبِ الَّذِى أَنَزلَ مِن قَبْلُ﴾

(হে বিশ্বাসীগণ! বিশ্বাস স্থাপন করো আল্লাহ এবং তাঁর বার্তাবহের ওপর, এবং যে গ্রন্থ তিনি বার্তাবহের ওপর অবতীর্ণ করেছেন, এবং যেসব গ্রন্থ তিনি অবতীর্ণ করেছেন (তার) পূর্ববর্তীদের ওপর) [৪:১৩৬]

﴿وَلاَ تُجَـدِلُواْ أَهْلَ الْكِتَـبِ إِلاَّ بِالَّتِى هِىَ أَحْسَنُ إِلاَّ الَّذِينَ ظَلَمُواْ مِنْهُمْ وَقُولُواْ ءَامَنَّا بِالَّذِى أُنزِلَ إِلَيْنَا وَأُنزِلَ إِلَيْكُمْ وَإِلَـهُنَا وَإِلَـهُكُمْ
وَاحِدٌ﴾

(তোমরা গ্রন্থধারী মানুষদের সাথে উত্তম পন্থা অবলম্বন ব্যাতীত তর্কবিতর্ক করো না, তবে তারা ছাড়া যারা দুষ্কৃতিকারী; এবং (তাদের) বলোঃ “আমরা বিশ্বাস করি, যা কিছু অবতীর্ণ হয়েছে আমাদের প্রতি ও যা কিছু অবতীর্ণ হয়েছে তোমাদের প্রতি; আমাদের ইলাহ (ঈশ্বর) ও তোমাদের ইলাহ (ঈশ্বর) তো একই (অর্থাৎ আল্লাহ)) [২৯:৪৬]

﴿يَـأَيُّهَآ الَّذِينَ أُوتُواْ الْكِتَـبَ ءَامِنُواْ بِمَا نَزَّلْنَا مُصَدِّقاً لِّمَا مَعَكُمْ﴾

(তোমাদের যাদেরকে বই দেয়া হয়েছে (ইহুদি ও খ্রিস্টানগণ)! তোমরা তোমাদের কাছে যা আছে তার সমর্থকরূপে আমি যা (মুহাম্মাদের ওপর) অবতীর্ণ করেছি তাতে বিশ্বাস করো।) [৪:৪৭]

﴿قُلْ يَـأَهْلَ الْكِتَـبِ لَسْتُمْ عَلَى شَىْءٍ حَتَّى تُقِيمُواْ التَّوْرَاةَ وَالإِنجِيلَ وَمَآ أُنزِلَ إِلَيْكُمْ مِّن رَّبِّكُمْ﴾

((হে মুহাম্মাদ) বলোঃ “হে গ্রন্থধারী লোকেরা (ইহুদি ও খ্রিস্টানগণ)! তাওরাহ (তরাহ), ইঞ্জিল (গস্পেল) ও তোমাদের ওপর তোমাদের প্রভুর পক্ষ থেকে যা অবতীর্ণ হয়েছে (ক্বুর’আন) সে অনুযায়ী কাজ করার আগপর্যন্ত তোমাদের জন্য কিছুই নেই।) [৫:৬৮]

এছাড়াও মহান আল্লাহ বিশ্বাসীদের ব্যাপারে আরও বর্ণনা করেছেন;

﴿ءَامَنَ الرَّسُولُ بِمَآ أُنزِلَ إِلَيْهِ مِن رَّبِّهِ وَالْمُؤْمِنُونَ كُلٌّ ءَامَنَ بِاللَّهِ وَمَلَـئِكَتِهِ وَكُتُبِهِ وَرُسُلِهِ لاَ نُفَرِّقُ بَيْنَ أَحَدٍ مِّن رُّسُلِهِ﴾

(বার্তাবাহক (মুহাম্মাদ) তার প্রভুর পক্ষ থেকে তার প্রতি যা অবতীর্ণ হয়েছে তার ওপর বিশ্বাস করে এবং বিশ্বাসীগণও। তারা প্রত্যেকেই আল্লাহ, তাঁর মালা’ইকাহ, তাঁর গ্রন্থসমূহ, তাঁর বার্তাবাহকদের বিশ্বাস করে। (তারা বলে,) “আমরা তাঁর বার্তাবাহকদের কারও মধ্যে কোন পার্থক্য করি না।”), এবং,

﴿وَالَّذِينَ ءَامَنُواْ بِاللَّهِ وَرُسُلِهِ وَلَمْ يُفَرِّقُواْ بَيْنَ أَحَدٍ مِّنْهُمْ﴾

(আর যারা আল্লাহ ও তাঁর বার্তাবাহকদের বিশ্বাস করে, তারা তাদের (বার্তাবাহকদের) কারও মধ্যে কোন পার্থক্য করে না) (৪:১৫২),

প্রকৃত বিশ্বাসী দাসগণ সবাই আল্লাহ, তাঁর সকল বার্তাবাহকদের এবং তাঁর পাঠানো সকল গ্রন্থেই বিশ্বাস করে— এই আইয়াতগুলো তারই কিছু নমুনামাত্র।

পূর্ববর্তী ধর্মগ্রন্থের অনুসারীদের মধ্যে যারা ক্বুর’আনে বিশ্বাসী, তাদের জন্য রয়েছে বিশেষ তাৎপর্য। কারণ তারা তাদের প্রতি অবতীর্ণ গ্রন্থ এবং এর সাথে সম্পর্কিত সবকিছুই বিশ্বাস করে। কাজেই এরা যখন ইসলাম গ্রহণ করে, এবং ধর্মের সকল ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র জিনিষের প্রতি আন্তরিকভাবে বিশ্বাস করে, তখন তারা দ্বিগুণ প্রতিদান পাবে। অন্যান্যদের ক্ষেত্রে, তারা শুধুমাত্র সাধারণভাবে পূর্ববর্তী ধর্মের শিক্ষাগুলোর প্রতি বিশ্বাস করতে পারে। এ প্রসঙ্গে নাবী (স) বলেছেন,

«إِذَا حَدَثَكُمْ أَهْلُ الْكِتَابِ فَلَا تُكَذِّبُوهُمْ وَلَا تُصَدِقُوهُمْ وَلكِنْ قُولُوا: آمَنَّا بِالَّذِي أُنْزِلَ إِلَيْنَا وَأُنْزِلَ إِلَيْكُم»

(যখন গ্রন্থধারী লোকগণ তোমাদের কাছে কিছু বর্ণনা করে, তখন তাদের কথা অস্বীকারও করো না, সমর্থনও করো না। বরং বলো, ‘আমরা বিশ্বাস করি আমাদের প্রতি যা অবতীর্ণ হয়েছে এবং তোমাদের প্রতি যা অবতীর্ণ হয়েছে তাতেও।’)

তবে কোন কোন ক্ষেত্রে গ্রন্থধারী লোকদের চেয়ে অন্যান্য লোকদের ইসলাম ধর্মের ওপর যে বিশ্বাস রয়েছে, তা অধিক পরিপূর্ণ এবং দৃঢ়। সে ক্ষেত্রে গ্রন্থধারী লোকদের মধ্যে যারা ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছে তারা যদি দ্বিগুণ পুরস্কার পায়, অন্যান্য মুসলিমেরা যাদের ইসলামের প্রতি বিশ্বাস অধিকতর দৃঢ় ও পরিপূর্ণ তারা গ্রন্থধারী লোকদের দুজনের সমানও পুরস্কার পেতে পারে। আল্লাহই ভালো জানেন।

< পূর্বের পৃষ্ঠা ▬▬▬▬▬ পরের পৃষ্ঠা >


Advertisements

আলোচনা

কোন মন্তব্য নেই এখনও

মন্তব্য করুন...

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: